২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
Home » Parallax Page » আজকের রাজশাহী » রাজশাহী নগরীতে সৌদি রিয়ালসহ তিন প্রতারক আটক

রাজশাহী নগরীতে সৌদি রিয়ালসহ তিন প্রতারক আটক

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনে প্রকাশিত সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: রাজশাহী নগরীতে সৌদি রিয়াল ও নগদ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকাসহ তিন প্রতারককে আটক করেছে বোয়ালিয়া থানা পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯ টার সময় বোয়ালিয়া থানার গণকপাড়া মোড়ে স্টার আবাসিক হোটেল থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃত হলো– রাজৈর থানাধীন মাজারকান্দি এলাকার কাঞ্চন ঢালির ছেলে ছালাম ঢালী, শিবচর থানাধীন বাঘমারা এলাকার ইদ্রিস মাতাব্বরের ছেলে নিজাম মাতাব্বর ও মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানাধীন শ্রীকৃষ্ণদি এলাকার নোয়াবালি সিকদারের ছেলে জাহাঙ্গীর সিকদার। গতকাল বোয়ালিয়া থানার এসআই আব্দুল মতিন, এএসআই আব্দুল্লাহ আল মামুন, এএসআই নাজমুলসহ সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করেন।

এসময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ৪ টি সৌদি ৫০ রিয়াল নোট ও নগদ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

এসআই মতিন জানান, প্রতারকরা শামীম নামের একজন ব্যাক্তিকে বলেন, আমাদের কাছে বেশ কিছু রিয়াল আছে। যা বাংলাদেশি ৩০ লাখ টাকা মুল্য। এ টাকা ভাঙাতে পারছিনা। আপনি যদি নিতে চান তাহলে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে আসেন বিনিময়ে সব রিয়াল দিয়ে দিব।’

তাদের কথা বিশ্বাস করে নগরীর জিরো পয়েন্টে রাত সাড়ে ৮ টার সময় দেড় লাখ টাকা নিয়ে আসেন শামীম। তাদের হাতে এ টাকা তুলেন দেন তিনি। বিনিময়ে একটি লাল গামছার পোটলা ধরিয়ে দেয় প্রতারকরা। তারা চলে যাওয়ার পরে গামছা খুলে দেখেন, ৫০ রিয়াল ৪ টি নোট ও কাগজ ছাড়া কিছুই নেই। পরে বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করেন শামীম।

খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে গণকপাড়া মোড় স্টার হোটেলের তৃতীয় তলার একটি কক্ষ থেকে তাদের আটক করা হয়।

এ ঘটনায় আটককৃতদের বিরুদ্ধে বোয়ালিয়া থানায় প্রতারণার মামলা হয়েছে এবং আজ দুপুরে কোর্টের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান, বোয়ালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি নিবারন চন্দ্র বর্মন।


উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনে প্রকাশিত সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।