বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় সন্মানিত পাঠক, আপনি কি উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের নিয়মিত পাঠক? আপনি কি এই পত্রিকায় লিখতে চান? কেন নয় ? সমসাময়িক যেকোনো বিষয়ে আপনিও ব্যক্ত করতে পারেন নিজের চিন্তা, অভিমত, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ। স্বচ্ছ ও শুদ্ধ বাংলায় যেকোনো একটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে  লিখে পাঠিয়ে দিতে পারেন ইমেইলে কিংবা ফোন করেও জানাতে পারেন আপনাদের।  আমাদের যে কোন সংবাদ জানানোর ৩টি মাধ্যম।🟥১। মোবাইল: ০১৭৭৭৬০৬০৭৪ / ০১৭১৫৩০০২৬৫ 🟥২। ইমেইল: upn.editor@gmail.com🟥৩। ফেসবুক : facebook.com/Uttorbongoprotidin  
আজ ১২ মে ২০২১ বুধবার ৩:৪৫ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English

স্টাফ রিপোর্টার,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন ::
রাজশাহীবাসীসহ বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ ও সচেতন নাগরীক, মানবাধিকার সংগঠন, সুশীল সমাজের ব্যানারে একটি সুশৃংখল প্রতিবাদি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ।

অদ্য ২১ জুলাই রোজ রবিবার রাজশাহী নগরী রেলগেট শহিদ কামরুজ্জামান চত্ত্বরে সকাল ১০ ঘটিকার সময় এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকল সাংবাদিক ও নগরবাসী মিলে মানববন্ধনটি করেন, খুবই শান্তি শৃংখলভাবে, যথাযত যুক্তিযুক্ত দাবি দাওয়া নিয়ে এই মানববন্ধনটি সংঘটিত হয়েছে।

মানববন্ধনটি মুলত সম্প্রতি দেশব্যাপি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী একটি কুচক্রি মহল দেশের উন্নয়ন ও সরকারের ভার্বমুর্তি নসাতের অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ বিভিন্ন নামে বেনামে ভূইফোঁর অনলাইনে গুজবের নামে মিথ্যাচার জড়াচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতা চিন্তা করে রাজশাহী সচেতন মহল ও বিভিন্ন সংগঠন এই মানববন্ধনটি পরিচালনার সমর্থন ও উপস্থিত থেকে দাবি দাওয়া সহ দোষীদের শাস্তি কামনা করেছেন।

ভুয়া সংবাদ পরিবেশন, ভুয়া গুজব ছড়ানো, মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে মানি লোকদের মান ক্ষুন্ন করা সহ সকল ধরনের অপরাধের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং অপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা গ্রহনের দাবিতেই এই মানববন্ধনটি। মানববন্ধনে মুখ্য আলোচনার বিষয় হিসাবে ছিল জামায়াত বিএনপি এজেন্ডা বাস্তবায়নে যে বা যারা অপ্রচার বা মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে দেশকে অস্তৃতিশীল করতে চায়, তাদেরকে অতিবিলম্বে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানানো হয়েছে। দীর্ঘদিন যাবৎ লক্ষ্য করে দেখা যায় কিছু অশিক্ষিত (একাডেমীক সার্টিফিকেটহীন) মহল বিএনপির সময়ে সন্ত্রাসী গাঁ বাঁচাতে সাংবাদিকতার লেবাস নিয়ে অপসাংবাদিকতা লিপ্ত হয়েছে। তারা মুলত জামায়াত বিএনপি কথামত মনগড়া সংবাদ পরিবেশন করে সম্মানি লোকদের সম্মানহানি করছে। সম্মানহানি করে বা মিথ্যাচার করেই ক্ষান্ত নয় সেই অপচক্রটি,সম্প্রতি সাধারন মানুষকে হয়রানিও অর্থ সুবিধা নিতে মনগড়া কাহিনী লিখে সংবাদ মাধ্যমকে বিভ্রান্তিতে ফেলছে।

সুষ্ঠ বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের বিরুদ্ধচার করছে। আর্থিক সুবিধা পেতে সত্যকে মিথ্যা, মিথ্যাকে সত্য বানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছে। এই চক্রটির কোন আয়ের উৎস না থাকলেও, দিব্বি বাড়ি গাড়ি সহ লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে সাধারন জনগনের নিকট থেকে। চক্রটির পেছনের শক্তি কে তা তদন্ত পুর্বক আইনের আওতায় না আনলে, অতিশীঘ্রই সংবাদ মাধ্যম সহ জাতির বিবেক সাংবাদিকরা কালে বিবর্তে কলুশিত হয়ে যাবে।

চক্রটি প্রধান দৈনিক উপচারের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নুরে ইসলাম মিলন, রাজশাহীর সময় ডটকমের সম্পাদক মাসুদ রানা রাব্বানী,মতিহার বার্তা ডটকমের ইফতেখার আলম বিশাল ও কাজিম বাবু। নুরে ইসলাম মিলন নামের এই সাংবাদিক পরিচয়দানকারী ব্যাক্তির ইতিহাসটা রাজশাহীবাসির পুর্ব পরিচিত।

পুর্বে এই সাংবাদিক রুপধারী মানুষটা ছিল সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, ব্লাকমেইলার, প্রতারক। যার নামে চেক জালিয়াতি অপরাধে মামলা হয় ও ছয় মাস সাজা ভোগের পর জেল থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকতায় নাম লিখায়। এই সাংবাদিক মিলনের ফুপা কাজিম বাবুও চেক জালিয়াতির মামলায় ছয় মাসের সাজা খেটে গত কয়েক মাস আগে বের হয়ে আবার তৎপর হয়ে উঠেন।

কাজিম বাবু ২০১২ সালে ভুয়া ডিবি পরিচয়ে চাঁদাবাজি করা কালে পবা থানার তৎকালিন ওসি শরিফুল তাকে আটক করেন ও চালান দেন। এরপরও কাজিম বাবুর অপরাধ বন্ধ হয়নি, কখনো সাংবাদিক, কখনো পুলিশ, কখনো র‍্যাব হয়ে গ্রাম গঞ্জে গিয়ে প্রতারনা করেন সাধারন মানুষজন কে। এদিকে শিরোইল কলোনীর গাফফারের ছেলে ইফতেখার আলম বিশাল বিএনপি জামায়াত ক্ষমতা চুত্ত হওয়ার পরপরই যোগ দেন, কাজলা অক্টোর মোড়ের মাসুদ রানা রাব্বানী সাথে। কিছু দিন যেতে না যেতে তিনিও বনে যান সাংবাদিক রুপি সাংঘাতিক।

এই বিশাল ছিল মুলত বাসের হেল্পার, তাই তিনি বাস শ্রমিকের কার্ডধারী শ্রমিক। স্বরাকে ধরাজ্ঞান করে সংবাদ পরিবেশন ও মানি লোককে সংবাদের ভয় দেখিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে আর্থিক সুবিধা নিয়েই চলে তার দিন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে হাতিয়ার বানিয়ে সাধারন মানুষকে ভয় দেখিয়ে টাকা রোজগারের পথ হিসাবে বেঁচে নিয়েছে এই অশিক্ষিত বাসের হেল্পার। সর্বপরি উপরোক্ত ব্যাক্তি বর্গের অতিষ্ঠে নগরবাসী এই মানববন্ধন টিতে ব্যক্তব্য উল্লেখ্য করেন বক্তারা। এদিকে সুশীল সমাজ ও মানবাধিকার সংগঠন সহ নানা শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত সম্মিলত কণ্ঠে অপসাংবাদিক বন্ধ কর, অশিক্ষিত সাংবাদিক বর্জন কর, সাজা খাটা দোষী সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া কথা প্রতিবাদ করতে থাকে। ভুক্তভোগী অনেকের একত্রিত হয়ে অভিযোগ করেন মুখোশ জনসমুখ্যে তুলে ধরেন। অতি শীঘ্রই রাজশাহীর হলুদ সাংবাদিকতা ও অপ্রচার বন্ধে সচেতন ও সোচ্চার হওয়ার আহবানও করা হয় মানববন্ধনে। মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন নারী পুরুষ সহ প্রায় ২ শতাধিক মানুষ। উপস্থিত সচেতন নাগরীক সমাজের রাজশাহীর আহবাহক এস এম করিম বলেন অতি শীঘ্রই রাজশাহী অপসাংবাদিকতা বন্ধ করতে অন্যথায় বৃহত্তর আনন্দোলনের জন্য জন জোয়ার সৃষ্টি করা হবে। এদিকে বাংলাদেশ তৃণমুল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি রাজশাহী বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল বলেন, মুর্খতা দিয়ে আজ জাতীর বিবেক নামে ক্ষ্যত সাংবাদিকরা ও সমালোচিত অপ্রচার বন্ধ হবে না। শিক্ষিত কলম কখনো অন্যায়ের পক্ষে লিখতে পারে না, তারা লিখলে অন্যায়ের বিরুদ্ধে লিখবে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ বলে উল্লেখ্য করেন তিনি। অপরদিকে সচেতন নাগরিক সমাজের পক্ষে ব্যক্তব্য দেন এস ডি সুমন।

তিনি বলেন কিছু দিন থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া তথ্য প্রচার সহ জামায়াত বিএনপির মদত পুষ্ট কিছু হলুদ সাংবাদিক সংবাদের নামে মিথ্যাচার ও অপ্রচার চালিয়ে সরকারের ভাব মুর্তি নষ্টের অপচেষ্টা করছে। তাদের এই অপ্রচার বন্ধের দাবিও তোলেন তিনি। তিনি আরো বলেন বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার, জনগনের সরকার, সেই সরকার কে নিয়ে অপপ্রচারকারীরা কেউ ছাড় পাবে না।

এসএন/এসএস

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


আজ ২১ জুলাই ২০১৯ রবিবার ১২:৩৮ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English
© All rights reserved © 2016-2021 24x7upnews.com - Uttorbongo Protidin