বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় সন্মানিত পাঠক, আপনি কি উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের নিয়মিত পাঠক? আপনি কি এই পত্রিকায় লিখতে চান? কেন নয় ? সমসাময়িক যেকোনো বিষয়ে আপনিও ব্যক্ত করতে পারেন নিজের চিন্তা, অভিমত, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ। স্বচ্ছ ও শুদ্ধ বাংলায় যেকোনো একটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে  লিখে পাঠিয়ে দিতে পারেন ইমেইলে কিংবা ফোন করেও জানাতে পারেন আপনাদের।  আমাদের যে কোন সংবাদ জানানোর ৩টি মাধ্যম।🟥১। মোবাইল: ০১৭৭৭৬০৬০৭৪ / ০১৭১৫৩০০২৬৫ 🟥২। ইমেইল: upn.editor@gmail.com🟥৩। ফেসবুক : facebook.com/Uttorbongoprotidin  
আজ ৬ মে ২০২১ বৃহস্পতিবার ৫:৩২ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট ,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন ::
এক কাশ্মীরির ক্ষোভযুক্ত বার্তায় এ প্রশ্নের জবাব মেলে, কারফিউ চললে ঈদ তো দূরের কথা স্বাভাবিক জীবনই চালিয়ে নেয়া দুষ্কর হয়ে যায়।

ঈদকে সামনে রেখে শুক্রবার কাশ্মীরে চলমান ১৪৪ ধারা উঠিয়ে নিয়েছিল ভারত সরকার।

টানা ৫ দিনের অচলাবস্থার কিছুটা হলেও অবসান হয়। চালু করা হয় ইন্টারনেট ও টেলিফোন পরিসেবা।

জুমার নামাজ আদায় করতে দিতে কারফিউ শিথিল করা হয়েছিল। যদিও রাজধানী শ্রীনগরের সবচেয়ে বড় মসজিদ (জামা মসজিদ) বন্ধ রাখা হয়েছিল।

কিন্তু রোববার কাশ্মীরে ফের কারফিউ জারি করে ভারত প্রশাসন। যে কারণে সোমবার ঈদের দিনে পুরো কাশ্মীরের পথঘাট থমথমে বিরাজ করছে।

কাশ্মীরের ও শ্রীনগরের বেশিরভাগ মসজিদে ঈদের নামাজ আদায়ের অনুমতি দেয়নি দেশটির সরকার। খবর এনডিটিভির

এদিকে বিবিসি জানিয়েছে, রাজধানী শ্রীনগরে কড়া নিরাপত্তার মধ্যেই ঈদের নামাজ আদায় করেছেন সেখানকার মুসলিমরা। তাই অনেকেই ঈদের নামাজও পড়তে পারেননি।

রয়টার্স জানাচ্ছে, উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা আর বিক্ষোভের মধ্যে দিয়ে ঈদ উদযাপন করছেন কাশ্মীরের মুসলমানরা।

কারফিউ জারির মধ্যেও ঈদের আগের দিনে শ্রীনগরের পশুর হাটে বেশ কিছু ভেড়ার দেখা মিলেছিল। কিন্তু কারফিউ ভেঙে কোরবানির পশু কিনতে আসেনি কেউ।

ঈদের আগের দিন হাবাকের বাসিন্দা আব্দুল গাফ্ফার বলছিলেন, পকেটে একটা টাকাও নেই। ঈদে ছেলেমেয়েদের নতুন জামাকাপড় কিনে দিতে হয়, কোরবানির পশু কিনতে হয়। কিন্তু আমাদের এখন চিন্তা অন্য কিছু। সেটা হলো, খাব কী?

সবার হাতে যে টাকা নেই এমনটা নয়। যারা ব্যাংকে টাকা গচ্ছিত রেখেছেন তারাও না খেয়েই মরছেন।

একজন ব্যাংক কর্মী জানালেন, মানুষ খেপে রয়েছে, অথচ ব্যাংকের ভল্টে কোনো টাকা নেই। এটিএম বুথ গুলোও সব অকেজো, নেটওয়ার্ক নেই, সেখানে পাঠানোর টাকাও আসেনি।

এমন পরিস্থিতিতে ভারতের একমাত্র মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজ্যটিতে ঈদ শুধু নামে মাত্র উদযাপিত হচ্ছে সেখানে।

বিবিসিসহ আন্তর্জাতিক অনেক গণমাধ্যমে জানানো হয়েছে, ঈদের আগের দিনও (রোববার) বিক্ষোভে ফুঁসেছে কাশ্মীর।

রয়টার্স জানায়, রোববার বিকালে শ্রীনগরের সোউরা এলাকার মসজিদে কয়েকশ বিক্ষোভকারী জড়ো হন।

মাথায় স্কার্ফ পরে অসংখ্য নারী ও কিশোরী রাজপথে নেমে আসে।

তারা ভারতবিরোধী স্লোগান দেয়ার পাশাপাশি কাশ্মীর থেকে সেনা প্রত্যাহার ও তাদের স্বায়ত্তশাসন ফিরিয়ে দেয়ার দাবি জানান।

 

 

 

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


আজ ১২ আগস্ট ২০১৯ সোমবার ১০:৩৪ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English
© All rights reserved © 2016-2021 24x7upnews.com - Uttorbongo Protidin