ঈশ্বরদীতে নবজাতক কন্যা সন্তানকে বিক্রি!:উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন

Read Time:2 Minute

থানা প্রতিনিধি,উত্তরবঙ্গ প্রতিনিধি:: আবারো কন্যা সন্তান জন্ম নেওয়ায় ঈশ্বরদীতে নিষ্ঠুর বাবা-মা তাদের নবজাতক কন্যা সন্তানকে মাত্র ৭০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দিয়েছেন। বুধবার চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। বুধবার দুপুরে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সদ্য ভূমিষ্ঠ কন্যা সন্তানকে তার দরিদ্র বাবা-মা স্বেচ্ছায় বিক্রি করে দিয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

সন্তান বিক্রি করা ওই বাবা-মায়ের কথাবার্তা আচরণে ঘটনার সত্যতা মিললেও এ নিয়ে মুখ খুলতে রাজি হননি তারা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঈশ্বরদী পৗর এলাকার কলেজ রোড বকুলের মোড়ের ভ্যানচালক আব্দুর রশিদ ও শিল্পী খাতুন দম্পতির পাঁচ বছরের এক মেয়ে রয়েছে। এবার দ্বিতীয় সন্তান ছেলে হবে বলে তারা আশা করেছিলেন। বুধবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিল্পী খাতুন আরেকটি কন্যা সন্তান প্রসব করেন। এতে অসন্তুষ্ট এ দম্পতি এক পরিবারের নিঃসন্তান দম্পতির কাছে মাত্র ৭০ হাজার টাকায় নবজাতক শিশু কন্যাকে বিক্রি করে দেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করে বলেন, নবজাতক মেয়েটিকে কিনতে আরও দুজন আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন। তারা ৩০ হাজার টাকা দিতে চান। পরে ইসলাম নামে এক যুবকের কাছে ৭০ হাজার টাকায় নবজাতকটি বিক্রি করা হয়।

তবে ওই নবজাতকের বাবা আব্দুর রশিদ বলেন, আমার আগের এক মেয়ে রয়েছে। নতুন করে আরেক মেয়ে হয়েছে। অন্য কিছু জানতে হলে আমার বউয়ের সঙ্গে কথা বলেন। এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে তিনি রাজি হননি।

আব্দুর রশিদের স্ত্রী শিল্পী খাতুন সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ আসমা খান বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না। খোঁজ খবর নিয়ে দেখব তবে ঘটনাটি যে বাবা-মা ঘটিয়েছে তা তারা ঠিক করেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।