বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় সন্মানিত পাঠক, আপনি কি উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের নিয়মিত পাঠক? আপনি কি এই পত্রিকায় লিখতে চান? কেন নয় ? সমসাময়িক যেকোনো বিষয়ে আপনিও ব্যক্ত করতে পারেন নিজের চিন্তা, অভিমত, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ। স্বচ্ছ ও শুদ্ধ বাংলায় যেকোনো একটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে  লিখে পাঠিয়ে দিতে পারেন ইমেইলে কিংবা ফোন করেও জানাতে পারেন আপনাদের।  আমাদের যে কোন সংবাদ জানানোর ৩টি মাধ্যম।🟥১। মোবাইল: ০১৭৭৭৬০৬০৭৪ / ০১৭১৫৩০০২৬৫ 🟥২। ইমেইল: upn.editor@gmail.com🟥৩। ফেসবুক : facebook.com/Uttorbongoprotidin  
আজ ১১ মে ২০২১ মঙ্গলবার ৫:২৯ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English

স্টাফ রিপোর্টার,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন:: বিচারক ও আইনজীবীদের মধ্যে এজলাস চলাকালীন কথোপকথন বা যুক্তি-তর্ক একান্তভাবে কোর্টের সম্পদ এবং সংবাদপত্রে প্রকাশযোগ্য নয় বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল।

সম্প্রতি এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে প্রেস কাউন্সিল এ কথা জানিয়েছে বলে সোমবার সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়েছে।

প্রেস কাউন্সিল জানায়, বিচারাধীন মামলার রায়কে প্রভাবিত করতে পারে এমন কোনো বিষয় বা ঘটনা এবং বিচারকদের মানহানি ঘটে এমন কোনো মন্তব্য বা মতামত প্রকাশ থেকে গণমাধ্যমকে বিরত থাকতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিচারাধীন মামলার বিষয়ে প্রকৃত চিত্র পরিবেশন করা যাবে। কোনো বিষয়ে সন্দেহের উদ্রেক হলে তা সংশ্লিষ্ট কোর্টের বেঞ্চ কর্মকর্তা, হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার এবং আপিল বিভাগের কাছ থেকে যাচাই করে প্রকাশ করতে হবে।

সুপ্রিম কোর্টের অবমাননা হয় এবং বিচারকদের মর্যাদা ক্ষুণ্ন বা ক্ষুণ্নের সম্ভাবনা থাকে এমন সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকতে হবে। অত্যন্ত সতর্কতার সাথে বিষয়টি প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক এবং অনলাইন মিডিয়াকে প্রতিপালনের অনুরোধ জানিয়েছে প্রেস কাউন্সিল।

বিশেষ করে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের প্রণীত ‘সাংবাদিকদের জন্য আচরণবিধি ১৯৯৩’ (২০০২ সালে সংশোধিত) এর ১৬ নং দফা অনুসরণের জন্য সব গণমাধ্যমকে অনুরোধ করা হয়েছে। এ দফায় বলা হয়েছে, ‘কোনো অপরাধের ঘটনা বিচারাধীন থাকাকালীন সব পর্যায়ে তার খবর ছাপানো এবং মামলা বিষয়ক প্রকৃত চিত্র উদঘাটনের জন্য আদালতের চূড়ান্ত রায় প্রকাশ করা সংবাদপত্রের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। তবে বিচারাধীন মামলার রায়কে প্রভাবিত করতে পারে এমন কোনো মন্তব্য বা মতামত প্রকাশ থেকে চূড়ান্ত ঘোষণার আগ পর্যন্ত বিরত থাকতে হবে।’

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের রিট পিটিশনের (৮৯১৭/২০১৯ নম্বর) প্রেক্ষিতে গত ৭ আগস্ট রিট মোকাদ্দমাটি বিচারপতি ওবায়দুল হাসান এবং বিচারপতি মোহাম্মদ আলী সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ শুনানি করেন।

সব বিষয় বিবেচনা করে হাইকোর্ট যে আদেশ দেন তার ভিত্তিতে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল এই প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


আজ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার ৫:২১ পূর্বাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English
© All rights reserved © 2016-2021 24x7upnews.com - Uttorbongo Protidin