বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় সন্মানিত পাঠক, আপনি কি উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের নিয়মিত পাঠক? আপনি কি এই পত্রিকায় লিখতে চান? কেন নয় ? সমসাময়িক যেকোনো বিষয়ে আপনিও ব্যক্ত করতে পারেন নিজের চিন্তা, অভিমত, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ। স্বচ্ছ ও শুদ্ধ বাংলায় যেকোনো একটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে  লিখে পাঠিয়ে দিতে পারেন ইমেইলে কিংবা ফোন করেও জানাতে পারেন আপনাদের।  আমাদের যে কোন সংবাদ জানানোর ৩টি মাধ্যম।🟥১। মোবাইল: ০১৭৭৭৬০৬০৭৪ / ০১৭১৫৩০০২৬৫ 🟥২। ইমেইল: upn.editor@gmail.com🟥৩। ফেসবুক : facebook.com/Uttorbongoprotidin  

অনলাইন ডেস্ক,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন:: নতুন ট্রাফিক আইনের বিভিন্ন নিয়ম-বিধিনিষেধ নিয়ে এমনিতেই সমালোচনার শেষ নেই ভারতে। এবার নতুন আরো একটি নিয়ম এসেছে আলোচনায়, যা শুনে অনেকেই বিস্মিত হচ্ছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজের প্রতিবেদন জানাচ্ছে, ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন ট্রাফিক আইন চালু হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ বাদে সব রাজ্যে এরই মধ্যে ওই আইন কার্যকর করা হয়েছে। নতুন এই আইন লঙ্ঘন করলেই দিতে হচ্ছে বড় অঙ্কের জরিমানা। জরিমানার অঙ্ক ৮০ হাজার টাকায় পৌঁছে যাওয়ার খবরও এসেছে সংবাদমাধ্যমগুলোতে।

এমনকি উত্তরপ্রদেশে কার্যকর হতে যাচ্ছে নতুন পোশাকবিধি। স্থানীয় সরকারের সংশোধিত মোটরযান আইন অনুযায়ী এটি কার্যকর হচ্ছে। এতে বিধিনিষেধ এসেছে লুঙ্গি ও গেঞ্জি পরে ট্রাক চালানোতেও। আইনে বলা হয়েছে, লুঙ্গি ও গেঞ্জি পরা অবস্থায় ট্রাক চালালে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হবে অভিযুক্ত চালককে। তবে এতকিছুর ভিড়ে নতুন আরেকটি ‘নিয়ম’ সবাইকে বিস্মিত করেছে।

বার্তা সংস্থা এএনআই-এর বরাত দিয়ে জি নিউজের প্রতিবেদন জানাচ্ছে, গাড়ির ফার্স্ট এইড বা প্রাথমিক চিকিৎসার ওষুধপত্র রাখার জন্য বক্সে কনডম (জন্মনিরোধক) না থাকলে জরিমানা করছে ট্রাফিক পুলিশ। কিন্তু কেন গাড়ির ফার্স্ট এইড বক্সে কনডম রাখার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে, সে বিষয়ে কিছুই অবগত নন ক্যাব চালকেরা। ফলে তাঁরাও রয়েছেন ধোঁয়াশার মধ্যে। চালকেরা জানাচ্ছেন, ফার্স্ট এইড বক্সে কনডম না থাকলেই জরিমানার চালান হাতে ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে চালকদের।

তবে দিল্লি ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে ক্যাব চালকদের এমন দাবিকে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এরকম দাবি একেবারেই ভিত্তিহীন।

চালকদের প্রতিও পরামর্শ আছে পুলিশের। যদি কোনো চালকের সঙ্গে এমন কোনো ঘটনা ঘটে থাকে, তাহলে তিনি যেন অবশ্যই লিখিত আকারে পুলিশকে জানান, এমনটিই পরামর্শ তাঁদের। চালকদের আশ্বাস দিতেও ভোলেনি ট্রাফিক পুলিশ বিভাগ। জানানো হয়, অভিযোগের ভিত্তিতে এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে দিল্লি ট্রাফিক পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


© All rights reserved © 2016-2021 24x7upnews.com - Uttorbongo Protidin Trusted Online Newsportal from Rajshahi, Bangladesh.