স্টাফ রিপোর্টার,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন:: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানিয়েছেন, কাশ্মীর নিয়ে পারমাণবিক যুদ্ধ বেঁধে যেতে পারে বলে তিনি জাতিসংঘে সতর্কবার্তা দিয়েছেন। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হিন্দুত্ববাদের কারণেই দক্ষিণ এশিয়ার দুটি দেশ এ সংঘাতে জড়াতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেছেন ইমরান।

গত ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানের বালাকোটে হামলা চালায় ভারতীয় বিমান বাহিনী। পাকিস্তান পাল্টা হামলায় দুটি ভারতীয় বিমান ভূপাতিত করে। আগস্টে কাশ্মীরের বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা বাতিল করে মোদি সরকার। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাশ্মীরে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করেছে দিল্লি। এছাড়া রাজ্যের কয়েক হাজার রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। এ নিয়েও পাকিস্তানের সঙ্গে উত্তেজনা চলছে ভারতের।

কাশ্মীরের জনগণ আন্দোলন শুরু করলে কী পরিণতি হতে পারে জানতে চেয়ে ইমরান বলেন, ‘তারা যদি রাস্তায় বের হয়ে আসে তাহলে কী হবে?’

তিনি বলেন, ‘আমার এখানে আসার উদ্দেশ্য হচ্ছে জাতিসংঘে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং এই বিষয়ে কথা বলা। আমরা এমন একটি সম্ভাব্য বিপর্যয়ের দিকে যাচ্ছি যা এখানকার কেউ অনুধাবন করছেন না। কিউবা সংকটের পর এটা এমন একটা সময় যখন দুটি পারমাণবিক শক্তিধর দেশ মুখোমুখি অবস্থান নিতে যাচ্ছে।’

ফেব্রুয়ারিতে বিমান হামলার কথা উল্লেখ করে পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ফেব্রুয়ারিতে আমার সেনাপ্রধান ও বিমান বাহিনীর প্রধান আমাকে বললেন, ভারতীয় বিমান পাকিস্তানের সীমায় প্রবেশ করে বোমা ফেলেছে। আমারা কী করব? আমরা কী করব?

পারমাণবিক হামলার ইঙ্গিত দিয়ে ইমরান বলেন, ‘আমার-আমাদের কী সেটা বেছে নেওয়া উচিৎ ছিল?

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •