বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় সন্মানিত পাঠক, আপনি কি উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের নিয়মিত পাঠক? আপনি কি এই পত্রিকায় লিখতে চান? কেন নয় ? সমসাময়িক যেকোনো বিষয়ে আপনিও ব্যক্ত করতে পারেন নিজের চিন্তা, অভিমত, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ। স্বচ্ছ ও শুদ্ধ বাংলায় যেকোনো একটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে  লিখে পাঠিয়ে দিতে পারেন ইমেইলে কিংবা ফোন করেও জানাতে পারেন আপনাদের।  আমাদের যে কোন সংবাদ জানানোর ৩টি মাধ্যম।🟥১। মোবাইল: ০১৭৭৭৬০৬০৭৪ / ০১৭১৫৩০০২৬৫ 🟥২। ইমেইল: upn.editor@gmail.com🟥৩। ফেসবুক : facebook.com/Uttorbongoprotidin  
আজ ১০ মে ২০২১ সোমবার ১১:২৬ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English

রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নে সভাপতি  সাধারন সম্পাদক মাহাতাব:উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন

স্টাফ রিপোর্টার, উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনে সভাপতি পদে বিজয়ী হয়েছেন জাহাঙ্গীর আলম। আর সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মাহাতাব হোসেন চৌধুরী।

শনিবার সকাল ১০টায় নির্বাচনের এই ফল ঘোষণা করা হয়।

নির্বাচনের ১১টি পদের মধ্যে আটটির ফলাফল ঘোষণা করা হয়। বাকি তিন পদের ভোট গণনা শেষ হয়নি বলে ফলও ঘোষণা হয়নি।

ফল ঘোষণা করেন নির্বাচনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট রবিউল হক কাকর।

ঘোষিত ফল অনুযায়ী, সভাপতি পদে জাহাঙ্গীর আলম দোয়াত কলম প্রতীকে ১ হাজার ৯৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। আর সাধারণ সম্পাদক পদে মাহাতাব হোসেন চৌধুরী স্টিমার প্রতীকে ১ হাজার ৬০৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া ঘোষিত অন্য ছয় পদের মধ্যে সহসাধারণ সম্পাদক পদে মো. গাজি, কোষাধ্যক্ষ পদে জহুরুল ইসলাম জনি, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মো. ফেরদৌস, দফতর সম্পাদক পদে পরিমল দাস, সহদফতর সম্পাদক পদে শংকর কুমার তালুকদার, সাংষ্কৃতিক, ক্রীড়া ও প্রচার সম্পাদক পদে গোলাম আজম জুলমত নির্বাচিত হয়েছেন।

এর আগে শুক্রবার রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠ সংলগ্ন নাইস কমিউনিটি সেন্টারে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হয়।

নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ২১টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ১১১ জন। নির্বাচনের মোট ভোটার ছিলেন তিন হাজার ৪২০ জন।

জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের কমিটির মেয়াদ শেষ হলে ২০১৭ সালের ২৪ মে নির্বাচনের আয়োজন করা হয়। সেদিন ভোট গণনা শেষ হলেই বহিরাগত একটি সন্ত্রাসী বাহিনী ভোটকেন্দ্রে হামলা চালায়।

গোলাগুলির ঘটনাও ঘটে। ব্যালট বাক্স ছিনতাই করা হয়। মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয় নির্বাচন কমিশনারদেরও। এমন পরিস্থিতিতে নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করা হয়।

এরপর ২১ সদস্যের একটি আহ্বায়ক কমিটি দিয়েই চলছিল মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন। অবশেষে গত ২২ জুন রাজশাহী এসে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান ওই কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। তিনি নির্বাচন আয়োজনের জন্য রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে দায়িত্ব দিয়ে যান। গঠন করা হয় নতুন একটি আহ্বায়ক কমিটিও। তিন মাসের মাথায় সেই কমিটি নির্বাচনের ব্যবস্থা করলো।

এই নির্বাচনের ভোটগ্রহণকালেও দুই সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে এক প্রার্থীসহ অন্তত সাতজন আহত হন। পরে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট রবিউল হক কাকর বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। একটু মারামারির ঘটনা ঘটলেও সেটা কেন্দ্রের বাইরে। কেন্দ্রের ভেতরে কোনো বিশৃঙ্খলা ঘটেনি। ভোট গণনা শেষ হওয়া মাত্রই বাকি তিন পদের ফলাফল ঘোষণা করা হবে বলেও জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


আজ ৫ অক্টোবর ২০১৯ শনিবার ২:৩৭ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English
© All rights reserved © 2016-2021 24x7upnews.com - Uttorbongo Protidin