বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় সন্মানিত পাঠক, আপনি কি উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের নিয়মিত পাঠক? আপনি কি এই পত্রিকায় লিখতে চান? কেন নয় ? সমসাময়িক যেকোনো বিষয়ে আপনিও ব্যক্ত করতে পারেন নিজের চিন্তা, অভিমত, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ। স্বচ্ছ ও শুদ্ধ বাংলায় যেকোনো একটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে  লিখে পাঠিয়ে দিতে পারেন ইমেইলে কিংবা ফোন করেও জানাতে পারেন আপনাদের।  আমাদের যে কোন সংবাদ জানানোর ৩টি মাধ্যম।🟥১। মোবাইল: ০১৭৭৭৬০৬০৭৪ / ০১৭১৫৩০০২৬৫ 🟥২। ইমেইল: upn.editor@gmail.com🟥৩। ফেসবুক : facebook.com/Uttorbongoprotidin  
আজ ১১ মে ২০২১ মঙ্গলবার ৫:২৯ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English

স্টাফ রিপোর্টার ,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন:: চুয়াডাঙ্গায় বছরের পর বছর খোলা জায়গায় পড়ে থাকায় নষ্ট হচ্ছে শতাধিক বাইসাইকেল, কয়েক হাজার মোটর সাইকেল, প্রাইভেটকার ও সিএনজি চালিত আটোরিকসা। বিভিন্ন অপরাধ সংশ্লিষ্ট কর্মকাণ্ডের ঘটনায় জব্দ হওয়া এসব গাড়ি সংরক্ষণে কোন উদ্যোগ নেই কর্তৃপক্ষের।

তবে পুলিশ বলছে, জব্দ এসব গাড়ির বেশিরভাগই চোরাই। সঠিক কাগজপত্র না থাকায় দেয়া যাচ্ছে না এসব মোটরসাইকেল ও গাড়ি। এ ছাড়া মামলার জটিলতার কারণে আটক হওয়া যানবাহন গুলো নিলাম করতে পারছেনা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এতে কোটি টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার।

চুয়াডাঙ্গার কোর্ট মালখানা ও পুলিশ লাইন গিয়ে দেখা গেছে, শতাধিক বাইসাইকেল, কয়েকহাজার মোটরসাইকেল, আটোরিকশা, নসিমন ও করিমন রোদ-বৃষ্টিতে পুড়ে নষ্ট হচ্ছে। যানবাহনগুলো বিভিন্ন নামি-দামি ব্যান্ডের। এরমধ্যে কোনটা সচল আবার কোনটা অচল। সরকারি মালখালায় বছরের পর বছর অযত্নে পড়ে থাকায় কিছু গাড়ির কাঠামো ও চেসিস ছাড়া অবশিষ্ট কিছুই নেই।

পুলিশ জানায়, আইনি জটিলতার কারণে অনেক মালিকই ছাড়িয়ে নিতে পারেন না তার গাড়ি। তাই দিন-দিন এভাবে জমে গাড়ির স্তুপ তৈরি হয়েছে। আইন অনুসারে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ধ্বংসের বিধান নেই।

এ দিকে আনসার আলী নামে একজন অভিযোগ করে বলেন, বছরের পর বছর এসব জব্দ গাড়ি রোদে-বৃষ্টিতে রেখে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এছাড়া গাড়ির বেশিরভাগ যন্ত্রাংশ ও ব্যাটারি খুলে নেয়ারও অভিযোগ করেন তারা। দ্রুত এসব গাড়ির মামলা নিষ্পত্তি করে নিলামে দেয়ার দাবি স্থানীয়দের।

চুয়াডাঙ্গা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট বেলাল হোসেন জানান, রাষ্ট্রীয় সম্পদ এভাবে অযত্নে-অবহেলায় পড়ে থাকার বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। সংশ্লিষ্ট সবাই কাজ করার পরও কেন এর সুরাহা হচ্ছে না, তা বুঝতে পারছি না। দ্রুত এসব মামলা নিষ্পত্তি করলেই আমাদের সম্পদগুলো রক্ষা পাবে। সরকারও রাজস্ব পাবে।

চুয়াডাঙ্গার কোর্ট মালখানার পুলিশ পরিদর্শক মো. আমিনুল ইসলাম জানান, যেসব গাড়ি রয়েছে তার মধ্যে বেশিরভাগই মামলার আলামত হিসেবে পড়ে রয়েছে। এ ছাড়া জব্দ করা এসব গাড়ির বেশিরভাগই মাদক বহনের সহয়তার কাজে ব্যবহৃত বিধায় আদালত থেকে জিম্মায় দেয়া যাচ্ছে না। তবে এ বিষয়ে অল্প সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  • 786
  • 343
  • 232
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1.4K
    Shares


আজ ৭ জানুয়ারী ২০২০ মঙ্গলবার ৫:৩৩ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English
© All rights reserved © 2016-2021 24x7upnews.com - Uttorbongo Protidin