বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় সন্মানিত পাঠক, আপনি কি উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের নিয়মিত পাঠক? আপনি কি এই পত্রিকায় লিখতে চান? কেন নয় ? সমসাময়িক যেকোনো বিষয়ে আপনিও ব্যক্ত করতে পারেন নিজের চিন্তা, অভিমত, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ। স্বচ্ছ ও শুদ্ধ বাংলায় যেকোনো একটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে  লিখে পাঠিয়ে দিতে পারেন ইমেইলে কিংবা ফোন করেও জানাতে পারেন আপনাদের।  আমাদের যে কোন সংবাদ জানানোর ৩টি মাধ্যম।🟥১। মোবাইল: ০১৭৭৭৬০৬০৭৪ / ০১৭১৫৩০০২৬৫ 🟥২। ইমেইল: upn.editor@gmail.com🟥৩। ফেসবুক : facebook.com/Uttorbongoprotidin  
আজ ১৩ মে ২০২১ বৃহস্পতিবার ৭:২৫ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English

স্টাফ রিপোর্টার, উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন : বেসরকারি টেলিভিশন ‘ডিবিসি নিউজ’ শনিবার (১০ অক্টোবর) এ নিয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রচার করেছে।ফারুক চৌধুরী রাজশাহী-১ আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য হিসেবে এবারও নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদ্য সাবেক সভাপতি। টেলিভিশন চ্যানেলটির প্রতিবেদনে বলা হয়, এরই মধ্যে ওমর ফারুক চৌধুরীসহ এই ৮ সংসদ সদস্য ও তাদের স্ত্রী-সন্তানদের নামে বিপুল সম্পদের হদিশ পেয়েছে দুদক।

ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে নাম আসে ৫ জন সংসদ সদস্যের। দুদকের গোয়েন্দা দলের কাছেও এদের বিপুল পরিমাণ সম্পদের তথ্য আসে। এরপরই জাতীয় সংসদের হুইপ চট্টগ্রামের শামসুল হক চৌধুরী, সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, নারায়নগঞ্জ-২ আসনের নজরুল ইসলাম বাবু, ভোলা-৩ আসনের নুরনবী চৌধুরী শাওন ও বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য পঙ্কজ দেবনাথের সম্পদ খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত নেয় দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি।

সেই প্রতিবেদন প্রতিবেদনে দুদকের আরও তৎপরতা তুলে ধরে জানানো হয়, এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে লক্ষীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম পাপুলের অবৈধ সম্পদ খোঁজা শুরু করে দুদক। একই অভিযোগে তার স্ত্রী সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য সেলিনা ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সংস্থাটি।

সম্প্রতি দুদক সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ও রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে বলে জানিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, তার বিরুদ্ধে খাস পুকুর ইজারায় দুর্নীতি, সার ডিলার নিয়োগে অনিয়ম, স্কুল-কলেজে শিক্ষক নিয়োগে অনিয়মসহ সরকারি অর্থ আত্মসাতের মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের তথ্য পেয়েছে দুদক।

শুধু এই সংসদ সদস্যরাই নন, তাদের স্ত্রী ও সন্তানদের নামেও বিপুল সম্পদের তথ্য মিলেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক গোয়েন্দা ইউনিটের (বিএফআইইউ) তরফে। দুদক কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মোজাম্মেল হক খানের উদ্ধৃতি দিয়ে টেলিভিশনটি জানায়, তাদের ব্যাংক হিসাব, আয়কর নথি ও স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তির হিসাব খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আর এমপি পাপুলের মানি লন্ডারিং বিষয়ক তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে। কমিশনার আরও বলেন, “আমি মনে করি (এসব) প্রতিটি কেসেরই অগ্রগতি রয়েছে।”

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  • 109
  • 56
  • 32
  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    216
    Shares


আজ ১১ অক্টোবর ২০২০ রবিবার ১২:৫২ অপরাহ্ন রাজশাহী,বাংলাদেশ ।। ইংরেজীতে পড়ুন উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন Bengali Bengali English English
© All rights reserved © 2016-2021 24x7upnews.com - Uttorbongo Protidin