রাজশাহী সিভিল সার্জনের জাম গাছ কাটার নেপথ্যের কাহিনী

নিজস্ব প্রতিবেদক,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা মুল্যের ১০০বছরের পুরনো জামগাছ কেটে ফার্নিচার তৈরি করার অভিযোগ উঠেছে রাজশাহী সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ কাইয়ুম তালুকদারের বিরুদ্ধে।

গত ৮ফেব্রুয়ারী সিভিল সার্জনের বাসভবনের প্রায় ১০০বছরের পুরনো জামগাছ টেন্ডার ছাড়া গোপনে কেটে নেন রাজশাহী সিভিল সার্জন। তবে গাছ কাটার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ কাইয়ুম তালুকদার।

সরেজমিনে অনুসন্ধানে গিয়ে দেখা যায়, সিভিল সার্জনের বাসভবনের ভেতরে গ্রীলের মধ্যে সমিল থেকে চিরাই করা কাঠের পালা দেয়া আছে।

গেটে ঢুকতেই সিভিল সার্জন বাসভবনের গার্ড আব্দুল বারির বাধার মুখে পড়তে হয় সাংবাদিকদের। তিনি বলেন ভেতরে প্রবেশ করতে হলে সারের অনুমতি নিতে হবে। যা বলার অমাকে বলেন – এসময় গার্ডকে ১০০বছরের পুরনো জামগাছ কেটে নেয়ার বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ৮/৯ফেব্রুয়ারী এই পুরনো জামগাছটি কাটা হয়। আমার ভাই এরশাদ রাজশাহী সিভিল সার্জন সারের গাড়ির ড্রাইভার। কাইয়ুম সারের নির্দেশে ভাই এরশাদ গাছকাটার লোকজনকে ডেকে নিয়ে এসে গাছটি কেটে রেখিছিলেন। গত ১৪/১৫ ফেব্রুয়ারী কাটাগাছগুলো স্বমিলে নিয়ে গিয়ে চিরাই করে নিয়ে এসে সারের ফার্নিচার বানানোর জন্য মজুদ করে রাখা আছে।

এদিকে রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) আহম্মদ নিয়ামুর রহমানের কাছে গাছের বিষয় প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, সিভিল সার্জনের বাসভবনের প্রায় ১০০বছরের পুরনো জামগাছ কাটার বিষয়টি জানি না। আপনার মাধ্যমে জানলাম। গাছ কর্তন করতে হলে টেন্ডারের মাধ্যমে অনুমতিপত্র লাগবে। এছাড়া কেউ গাছ কাটতে পারবে না।

এমন কি নিয়ম অনুযায়ী সরকারী গাছ কাটাতে হলে আমাদের কাছ থেকে গাছের মূল্য নির্ধারন করা হয় । কেউ যদি অনুমতি ছাড়া গাছ কাটে তাহলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ কাইয়ুম এ বিষয়ে তালুকদার বলেন,আমি সবে মাত্র যোগদান করেছি। আমি যোগদানের সময় এই জামগাছটি পরিত্যাক্ত হিসেবে পেয়েছিলাম। সেটি কেটে সড়িয়ে রাখাছিলাম। পরবর্তিতে অফিসের আসবাবপত্র তৈরির জন্য সমিল থেকে চিরাই করে কাঠগুলো বাংলোতে রাখা আছে। আমার কোন ব্যাক্তিগত ফার্নিচার তৈরি করতে সেই গাছ কাটা হয়নি বলে জানান তিনি। নিয়ম অনুযায়ী সরকারী গাছ কাটাতে হলে বন বিভাগের অনুমতি লাগে সেটি নিয়েছেন কি এমন প্রশ্নে কোন মন্তব্য করতে চাননি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ কাইয়ুম তালুকদার।

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  • 191
  • 156
  • 112
  • 98
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    557
    Shares