রাজশাহী মেট্রোপুলিশের অভিযানে প্রতারক চক্র ও ছিনতাইকারী আটক আরএমপি সংবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: চাকরি দেয়ার নামে চাকরি প্রার্থীদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে রাজশাহী মহানগরীর সপুরায় রাজশাহী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র(টিটিসি) থেকে ভাই-বোনকে গ্রেফতার করেছে রাজশাহী শাহমখদুম থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো সুরাইয়া সুলতানা(২৯) ও তার ভাই মোঃ জাহাঙ্গীর আলম(৩৯)।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, রাজশাহী টিটিসির প্রশিক্ষণ কক্ষ ভাড়া নিয়ে ভূয়া প্রশিক্ষণ দিয়ে চাকরি প্রত্যাশী শিক্ষিত বেকার সহজ সরল যুবকদের চাকরি দেওয়ার নাম করে ভূয়া নিয়োগপত্র দিয়ে প্রতারক চক্র লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

এই প্রতারক চক্রের মূল হোতা সুরাইয়া সুলতানা ও তার ভাই মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ছাড়াও আরও পলাতক দুই-তিনজন প্রতারক এই প্রতারণার কাজে জড়িত। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান(২২)সহ ৭ জন চাকরি প্রত্যাশী বেকার যুবকদের সাথে সুরাইয়া সুলতানার বিভিন্নভাবে পরিচয় হয়। পরিচয়ের সূত্র ধরে সুরাইয়া সুলতানা তাদেরকে বিভিন্ন কোম্পানিতে উচ্চ বেতনের চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেয়। এক পর্যায়ে মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানদেরকে জানায় যে, তাদের বিভিন্ন কোম্পানিতে চাকরি হয়েছে এমকি নিয়োগ পত্রও প্রদান করে। পরবর্তীতে সুরাইয়া সুলতানা ও তার ভাই মোঃ জাহাঙ্গীর আলম চাকরি প্রত্যাশীদেরকে একত্রে করে বলে রাজশাহী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র(টিটিসি)তে তাদের প্রশিক্ষণ নিতে হবে। সেই মোতাবেক তারা গত ১৯ মে ২০২১ তারিখ টিটিসির কোইকা ডরমেটরিতে উঠে এবং প্রশিক্ষণ নিতে থাকে। উক্ত প্রশিক্ষণ কোর্সে সুরাইয়া সুলতানার ভাই মোঃ জাহাঙ্গীর আলম প্রশিক্ষক হিসেবে প্রশিক্ষণ দিত।

সুরাইয়া সুলতানা তাদেরকে জানায় যে প্রশিক্ষণ শেষে চাকুরিতে যোগদান করতে হলে প্রত্যেককে মোটা অংকের টাকা দিতে হবে। সেই মোতাবেক তারা চাকরি প্রত্যাশী ০৭ জন ১৯ মে হতে ২৪ মে বিভিন্ন তারিখে সুরাইয়া সুলতানাকে ১২,৫০,০০০ টাকা প্রদান করে।

প্রশিক্ষণ চলাকালীন সময়ে চাকরির বিষয়ে তাদের সন্দেহ হয়। পরবর্তীতে তারা হেতেম খাঁ এলাকায় অবস্থিত নেসকো অফিসে গিয়ে তাদের নিয়োগপত্র যাচাই করে। নেসকো কোম্পানি তাদেরকে জানায় যে, এগুলো তাদের অফিসের কোনো নিয়োগপত্র নয়।

চাকরির প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাৎ এর বিষয়টি বুঝতে পেরে তারা আজ ২৫ মে শাহমখদুম থানায় সুরাইয়া সুলতানা ও তার ভাই মোঃ জাহাঙ্গীর আলমসহ আরও দুই তিন জন ব্যক্তির নামে মামলা রুজু করে।

অন্যদিকে রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানার নিউ গভঃ ডিগ্রী কলেজের সামনে ছিনতাইয়ের ঘটনায় চার ছিনতাইকারীকে আটক করেছে রাজপাড়া থানা পুলিশ।

রাজশাহী শহরকে নিরাপদ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে অপরাধ প্রবণতা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে, পুলিশ কমিশনার জনাব মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক মহোদয়ের নির্দেশনায় নগরজুড়ে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা স্থাপন করেছে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ। যার সুফল প্রতিনিয়তয় পাচ্ছে নগরবাসী। মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে স্থাপন করা সিসিটিভি ক্যামেরায় ধারণকৃত ভিডিও ফুটেজ সূত্র ধরে দূর্ঘটনার কারণ, হারিয়ে যাওয়া মালামাল উদ্ধার, চুরি, ছিনতাই, খুনসহ অনেক সমস্যা দ্রুত সমাধান করা সম্ভব হচ্ছে।

এরই ধারবাহিকতায় এবার সুফল পেয়েছেন নগরীর সীমা আক্তার(ছদ্মনাম), তার ছিনতাইকৃত মোবাইল ও টাকা উদ্ধার করে এবং ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত ৪ জনকে আটক করেছে রাজপাড়া থানা ‍পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন-
  • 79
  • 58
  • 44
  • 38
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    219
    Shares

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।