২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
Home » Parallax Page » Today Trending News » নিত্য নতুন প্রযুক্তি সংযোজনে করছে ভিভো

নিত্য নতুন প্রযুক্তি সংযোজনে করছে ভিভো

নিত্য নতুন প্রযুক্তি সংযোজনে করছে ভিভো

নিত্য নতুন প্রযুক্তি সংযোজনে করছে ভিভো

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনে প্রকাশিত সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

প্রযুক্তি সংবাদ,উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: বদলে যাচ্ছে মানুষের জীবনধারা। সেই বদলে যাওয়ার চাহিদা পূরণে বদলে যাচ্ছে স্মার্টফোন ইন্ডাস্ট্রিও। প্রতি মুহূর্তে আসছে টেকনোলোজিতে পরিবর্তন। স্মার্টফোন প্রযুক্তিতে অগ্রদূত শীর্ষস্থানীয় গ্লোবাল স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভো মানুষের চাহিদাকে সামনে রেখেই দুর্দান্ত আর নিত্য নতুন উদ্ভাবন স্মার্টফোনে নিয়ে আসছে প্রতিযোগিতার এই বাজারে।

চলতি বছরের ফার্স্ট হাফ-এ স্মার্টফোন ইন্ডাস্ট্রিতে যেসব গুরুত্বপূর্ণ উদ্ভাবন এনেছে ভিভো-গিম্বল প্রযুক্তি ও কার্ল জেইসের সাথে যৌথ উদ্যোগ স্মার্টফোনের ক্যামেরায় সেরা মানের ছবি পাওয়ার জন্য প্রতিনিয়তই কাজ করছে ভিভো। আর এজন্য ভিভো কাজ করেছে ক্যামেরা লেন্স নির্মাণে বিশ্বের শীর্ষ প্রতিষ্ঠান কার্ল জেইসের সঙ্গে। জেইসের সঙ্গে সমন্বয় করে তৈরি করা লেন্স ব্যবহার করা হয়েছে ভিভো এক্স ৬০ প্রো স্মার্টফোনে। এছাড়া এতে আছে গিম্বল স্ট্যাবিলাইজেশন ২.০; যা পিক্সেল শিফট আলট্রা এইচডি ইমেজিং প্রযুক্তির মাধ্যমে দেয় ঝকঝকে আলট্রা এইচডি ফটোগ্রাফির অভিজ্ঞতা।

আই-অটোফোকাস

স্মার্টফোন দিয়ে ফটোগ্রাফির পর অনেক ক্ষেত্রে ছবি অস্পষ্ট বা ঘোলা হয়ে যায়। এ বিড়ম্বনা এড়াতে ভি-২০ মডেলের মাধ্যমে আই অটোফোকাস প্রযুক্তি নিয়ে আসে ভিভো। এই প্রযুক্তির সাহায্যে স্মার্টফোনে চলন্ত কোনো কিছুর ছবি তোলা যায় নিখুঁত ও দারুণভাবে। পাশাপাশি ছবি তোলার সময় স্মার্টফোনের কাঁপুনিতেও ছবির ওপর কোনো প্রভাব পড়ে না। পরবর্তীতে ভিভো ভি-২১ই এবং ভিভো ওয়াই ৫৩এস মডেলেও ব্যবহার করা হয় এই অটোফোকাস প্রযুক্তি।

ক্যামেরাতে ওআইএস

ছবি তোলার সময় হাত সামান্য নড়লেও ছবি নষ্ট হয়ে যায়, ব্লার বা অস্পষ্ট হয়ে যায়। ভিভো ভি২০ স্মার্টফোনের রিয়ার ক্যামেরায় অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন (ওআইএস) প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়। হাত নড়লেও ওআইএস প্রযুক্তির মাধ্যমে স্থির ও স্পষ্ট ছবি তোলা যাবে। ছবির গুণগত মানও ঠিক রাখবে। পরে ভিভো ভি২১ মডেলেও ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরায় ব্যবহার করা হয় ওআইএস প্রযুক্তি। এভাবে মোবাইল ফটোগ্রাফিতে বৈপ্লবিক পরিবর্তনে ভূমিকা রাখে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভো।

এক্সটেন্ডেড র‌্যাম

স্বল্প র‌্যাম দিয়ে আপনার ফোন দিয়ে কতটুকুই বা কাজ করতে পেরেছেন? মনের মত কাজ করতে চান স্মার্টফোনটি দিয়ে? একটানা স্মার্টফোন ব্যবহার করে ঝামেলাহীন অভিজ্ঞতা দিচ্ছে ভিভো। ভিভো ভি-২১ সিরিজ এবং ভিভো এক্স ৬০ প্রো মডেলে ৮ জিবির সাথে রয়েছে বাড়তি ৩ জিবি এবং ভিভো ওয়াই ৫৩ এস স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৮ জিবির পাশাপাশি বাড়তি ৪ জিবি ভার্চুয়াল র‌্যাম যোগ করার সুবিধা।

সেলফি স্পটলাইট

ভিভো’র ভি২১ স্মার্টফোনের ‘সেলফি স্পটলাইট’একটি দারুণ প্রযুক্তি। আলো কম কিংবা বেশি যেমনটাই থাকুন না কেন, আকর্ষণীয় সেলফি নিয়ে কোনো চিন্তা নেই। দুটি এলইডি স্পটলাইট স্টিমুলেট প্রফেশনাল স্টুডিও লাইটিং এর মাধ্যমে রাতেও আলট্রা ক্লিয়ার সেলফির দারুণ অভিজ্ঞতা পাওয়া যায়।

ডুয়েল-ভিউ ভিডিও

ভিভো ভি২১ স্মার্টফোন দিয়ে ডুয়েল-ভিউ ভিডিও প্রযুক্তির মাধ্যমে ফ্রন্ট ও রিয়ার ক্যামেরা দিয়ে একইসাথে ভিডিও করা যাবে। যারা ভ্লগ তৈরি করেন কিংবা লাইভ স্ট্রিমিং করেন তাদের জন্য বেশ দুর্দান্ত ফিচারের একটি স্মার্টফোন এটি।

নাইট ফটোগ্রাফি

শক্তিশালী এআই নাইট অ্যালগরিদমের মাধ্যমে এক্সট্রিম নাইট ভিশন ২.০, সুপার্ব নাইট ক্যামেরা ২.০, সেলফি স্পটলাইট এবং এআই নাইট প্রোর্ট্রেটের সাহায্যে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে অনন্য অভিজ্ঞতা দেয় ভিভো। ভিভো’র এক্স৬০ প্রো এবং ভি২১ মডেলের মাধ্যমে যেকোনো সময়, যেকোনো জায়গায় আলট্রা স্টেবল ও প্রফেশনাল ছবি তোলা যায়। রাতে কিংবা কম আলো থাকলেও ছবি তোলা ভিভো স্মার্টফোনের জন্য কোনো সমস্যাই না।

ভিভো একটি প্রযুক্তিভিত্তিক প্রতিষ্ঠান যা ডিজাইন ড্রিভেন ভ্যালুর ওপর ভিত্তি করে স্মার্ট ডিভাইস ও ইন্টেলিজেন্ট সার্ভিসের মাধ্যমে পণ্য উৎপাদন করে। মানুষ আর ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করাই প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্য। অনন্য সৃজনশীলতার মাধ্যমে ভিভো ব্যবহারকারীদের হাতে যথোপযুক্ত মোবাইল ও ডিজিটাল আনুষাঙ্গিক তুলে দিচ্ছে। প্রতিষ্ঠানের মূল্যবোধকে অনুসরণ করে ভিভো টেকসই উন্নয়ন কৌশল বাস্তবায়ন করেছে; সমৃদ্ধ ও দীর্ঘস্থায়ী বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান হওয়াই যার ভিশন।

স্থানীয় মেধাবী কর্মীদের নিয়োগ ও উন্নয়নের মাধ্যমে শেনজেন, ডনগান, নানজিং, বেজিং, হংঝু, সাংহাই, জিয়ান, তাইপে, টোকিও এবং সান ডিয়াগো এই ১০টি গবেষণা ও উন্নয়ন কেন্দ্রে (আরএন্ডডি) কাজ করছে ভিভো। যা স্টেট-অফ-দ্য-আর্ট কনজ্যুমার টেকনোলজির উন্নয়ন, ফাইভজি, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন, ফটোগ্রাফি এবং আসন্ন প্রযুক্তির ওপর কাজ করে যাচ্ছে।

চীন, দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় ভিভোর পাঁচটি প্রোডাকশন হাব আছে (ব্র্যান্ড অথোরাইজড ম্যানুফ্যাকচারিং সেন্টারসহ) যেখানে বছরে প্রায় ২০০ মিলিয়ন স্মার্টফোন বানানোর সামর্থ্য আছে। এখন পর্যন্ত ৫০টিরও বেশি দেশে বিক্রয়ের নেটওয়ার্ক আছে ভিভোর এবং বিশ্বজুড়ে ৪০০ মিলিয়নের বেশি ভিভো স্মার্টফোন ব্যবহারকারী রয়েছে।

বিস্তারিত জানার জন্য – https://www.vivo.com/bd

আরো তথ্যের জন্য: আহমেদ আল আমীন, ইনফো পাওয়ার, ০১৮৮৯৯৮২৯৭৫


উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনে প্রকাশিত সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।