রাজশাহীবাসীর ভালবাসায় সিক্ত সবুজ নগরীর রুপকার লিটন 

নিজস্ব প্রতিবেদক, উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মনোনীত হওয়ায় রাজশাহী সিটি মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। শনিবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এ গণসংবর্ধনার আয়োজন করা হয়।

বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীদের উপস্থিতি এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান জনসমুদ্রে রূপ নেয়। বিকেল ৩টায় শুরু হয়ে চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত।

রাজশাহী মহানগরীর বাটার মোড়, সাহেববাজারসহ আশপাশের এলাকায় লোকে লোকারণ্য হয়ে পড়ে। এতে বিকেলের পর প্রধান প্রধান সড়কগুলো কার্যত জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

আওয়ামীলীগের হাজারো হাজারো দলীয় নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও শ্রেণিপেশার সর্বস্তরের মানুষের ফুলেল শুভেচ্ছা আর ভালোবাসায় সিক্ত হন জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামানের ছেলে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।  

অনুষ্ঠানে এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনকে সম্মাননা স্মারক, ফুলের শুভেচ্ছা ও মানপত্র দিয়ে ও উত্তরীয় পরিয়ে সংবর্ধিত করে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ।

এরপর পর্যায়ক্রমে হাজারো দলীয় নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ রাসিক মেয়র লিটনকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন। 

গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক।  

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ডাবলু সরকার।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, সদস্য আখতার জাহানসহ বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য (এমপি)। এছাড়া আরও বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা।

আওয়ামীলীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র লিটন বলেন, আমি যাতে আমার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে পারি, সবাই দোয়া করবেন।

আমি আমার সর্বোচ্চ দিয়ে দলের জন্য এবং মানুষের জন্য কাজ করে যাবো। আমার পরিশ্রম মেধা, শ্রম যদি দলের জন্য বিন্দুমাত্রও কাজে লাগে, সেটি হবে আমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া। 

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য খায়রুজ্জামান লিটনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ভাষা সৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধারা, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টারা, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী কমিটি, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী কমিটি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, নওগাঁ, বগুড়াও জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা, সংসদ সদস্যরা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানরা, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রুয়েট উপাচার্য, রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, নর্থ বেঙ্গল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠন, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া ও ব্যবসায়িক নেতারা, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের অন্তর্গত পাঁচটি থানা আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের অন্তর্গত ৩৭টি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনসমূহ যথাক্রমে যুবলীগ,  স্বেচ্ছাসেবকলীগ জাতীয় শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ ,যুব মহিলা লীগ, মহানগর, রাবি, রুয়েট, মেডিকেল ও রাজশাহী কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শাখা ছাত্রলীগ, মহানগর তাঁতী লীগ, বিভিন্ন উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়ররা, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার সর্বস্তরের জনসাধারণ।

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে দলীয় ও জাতীয় সংগীত পরিবেশনা করা হয়। এরপর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের শহীদ সদস্য, জাতীয় চার নেতাসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে সব শহীদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে সংগীতের মধ্যে দিয়ে খায়রুজ্জামান লিটনকে মঞ্চে নিয়ে যাওয়া হয়।

 অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য কবি বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর রুহুল আমিন প্রামাণিক।


 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Uttorbongo Protidin

Uttorbongo Protidin ।। 24x7upnews.com Covering all latest Breaking, Bangla, Live, International and Entertainment news.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।