রাসিক মেয়র লিটন ২৬০০ শিক্ষার্থী ও অভিভাবককে শীতবস্ত্র উপহার দিলেন

সংবাদটি শেয়ার করুন
          
 
   

নিজস্ব প্রতিবেদক, উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত রাজশাহী সিটি প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং তাদের অভিভাবক ও শিক্ষকদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।

 

গতকাল সোমবার বিকালে নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

 

উক্ত অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুই শতাধিক শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। এরপর বাকিদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয় শীতবস্ত্র। রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ২০টি ওয়ার্ডে অবস্থিত ২০টি প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৩০০ জন শিক্ষার্থীর প্রত্যেককে একটি করে হুডি জ্যাকেট এবং ১৩০০ জন অভিভাবক ও শিক্ষকের প্রত্যেককে একটি করে কার্ডিগেন প্রদান করা হয়।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে শীতের তীব্রতা অনেক বেশি। শীতের তীব্রতার বিষয়টি বিবেচনা করে  প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে মোট ২৬০০ শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষককে শীতবস্ত্র প্রদান করা হলো। আমরা সব সময় মানুষের পাশে আছি, আগামীতেও থাকব।

 

মেয়র আরও বলেন, করোনাকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশে দফায় দফায় খাদ্যসামগ্রী ও নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেছেন। আগামীতেও এ সহায়তা প্রদান অব্যাহত থাকবে। অতীতের ন্যায় ভবিষ্যতেও আপনাদের পাশে থাকতে চাই।

 

মেয়র বলেন, রাজশাহীতে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ চলছে। আপনাদের সবাইকে সঙ্গে নিয়ে সুন্দর রাজশাহী গড়তে চাই। আপনারা সবাই পাশে থাকবেন, দোয়া করবেন।

 

সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. সাব্বির সাত্তার। উপস্থিত ছিলেন- রাবির পরিবেশ বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. সাবরিনা নাজ, ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর  নুরুজ্জামান,  ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন, সচিব মশিউর রহমান প্রমুখ।


রাসিক মেয়র লিটন ২৬০০ শিক্ষার্থী ও অভিভাবককে শীতবস্ত্র উপহার দিলেন

সংবাদটি শেয়ার করুন
          
 
   

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।