মাওলানা তারিখ জামিল কে ?

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনে প্রকাশিত সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  • 169
  • 206
  •  
  • 195
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    570
    Shares

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট :: বিশ্ব বিখ্যাত ইসলাম প্রচারক মাওলানা তারিক জামিল পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন। রাষ্ট্রপতি ডা. আরিফ আলভী মাওলানা তারিক জামিলকে এ সম্মাননা প্রদান করেন।

ধর্মীয় ক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রাখায় মাওলানা তারিক জামিল রাষ্ট্রীয় সম্মানে ভূষিত হয়েছেন বলে জিয়ো নিউজ ও বিবিসির খবরে বলা হয়েছে।

যেভাবে মাওলানা হলেন জামিল

মাওলানা তারিক জামিল, হয়তো হতেন একজন পাকিস্তানের ডাক্তার। মেডিকেলের ছাত্র ছিলেন। কিন্তু ইসলামের সৌন্দর্য মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে তিনি আজ বিশ্বব্যাপি ধর্ম-বর্ন নির্বিশেষে মানুষের কাছে পছন্দের পাত্র।

মাওলানা তারিক জামিলের জন্ম ১৯৫৩ সালে পাকিস্তান অধ্যুষিত পাঞ্জাবের খানেওয়াল প্রদেশের তুলাম্বা এলাকায়, বংশগত ভাবে চৌহান রাজপুত। তাঁর বাবা ছিলেন এলাকার জমিদার আলাবাক্স খান। বাবার খুব ইচ্ছে ছিল তিনি ছেলেকে ডাক্তার বানাবেন, গভার্মেন্ট কলেজ লাহোর থেকে প্রি-মেডিকেল শেষ করে মেধা গুনে ভর্তি হয়ে গেলেন।

মাওলানা তারিক জামিলের এক বাঙ্গালী বন্ধু তাকে একদিন বলেছিলেন – বন্ধু আমরা আগামীকাল এক জায়গায় যাবো ।তো তিনি ভাবলেন হয়তো নতুন কোন সিনেমা মুক্তি পেয়েছে তাই সিনেমা দেখতে বন্ধু নিয়ে যাবে। তিনি পরের দিন পরিপাটি হয়ে রেডি হয়ে রইলেন। এবং সময় মতো বন্ধুর সাথে বের হয়ে গেলেন।

এরপর তিনি যখন দেখলেন বন্ধু আসলে সিনেমা হলের দিকে যাচ্ছেন না তখন জিজ্ঞাসা করলেন আসলে আমরা যাচ্ছি কোথায় ?? তখন তাঁর বন্ধু বললেন তাবলীগে অমুক মসজিদে। প্রথমে অবাক হয়ে যেতে গড়িমসি করলেও গভীর বন্ধুত্ব আর বন্ধুর নাছোড়বান্দা স্বভাবের জন্য চলে গেলেন, ভাবলেন থাক ৩ দিনের ব্যাপার কি আর হবে দেখে আসি!

কিন্তু এখান থেকেই তাঁর জীবনের মোড় ঘুরে যায় । এরপর চলে যান ৪০ দিনের চিল্লায়।

বাসায় ফিরে এসে বাবাকে জানান যে, বাবা আমি ডাক্তার হতে চাইনা, আমি আলেম হতে চাই। বাবা শুনেই খুব রেগে গেলেন!!বাবা বললেন আমি চেয়েছি তুমি ডাক্তার হবে , ডাক্তারিতে যেমন সম্মান তেমন টাকা!! আর তুমি মোল্লা হতে চাও?? তাহলে এখুনি বাসা থেকে বের হয়ে যাও। জেদী জামিল মায়ের কাছ থেকে কয়েক হাজার টাকা নিয়ে বাসা থেকে মায়ের দোয়া নিয়ে বের হয়ে যান।

চলে আসলেন লাহোরের কাছের ইসলামিক শিক্ষাকেন্দ্র জামিয়া আরাবিয়া রেইমান্ড । পাকিস্তানের নামকরা ইসলামিক শিক্ষাকেন্দ্রে কোরান ,হাদীস, শরীয়াত, ফিকাহ ,তাসাউফের শিক্ষা গ্রহন করে কাটিয়ে দিলেন ১৪ বছর । এর মাঝে বাড়ী থেকে বাবাও মেনে নিলেন কয়েক বছরের মাঝে।

তাবলীগের দাওয়াত পৌছাতে কোথায় যাননি তিনি ? ইউরোপ আমেরিকা , আফ্রিকা সব দেশে দেশে মুসলমানদের দ্বরে দ্বরে ঘুরে বেরিয়েছন আল্লাহ্‌র নবীর (সা:) ভালবাসার বানী আল্লাহর ক্ষমার বাণী মুসলামানদের কাছে পৌছে দিয়েছেন। আল্লাহর বানী নিয়ে ছুটে গেছেন প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে পতিতালয় পর্যন্ত।

মাওলানা তারিক জামিল প্রায়শই বলে থাকেন – হে মেরী আল্লাহ কি বান্দো উসকে সাথ নিমখারামী না কারনা জিসনে তুমহে ইস জিন্দেগী দিয়া হ্যা। তোমহারী আল্লাহ কো পেহচানো।

দ্য মুসলিম ৫০০-এর ২০১৩/২০১৪ এডিশনে জনপ্রিয় বক্তা হিসেবে স্থান পেয়েছিলেন মাওলানা তারিক জামিল। মাওলানা তারিক জামিলের দাওয়াতে ধর্মীয় পথ অনুসরণ করেন, এমন সেলিব্রিটিদের সংখ্যাও কম নয়।

পাকিস্তানের সাবেক তারকা ক্রিকেটার ইনজামাম-উল হক, শহীদ আফ্রিদিসহ ক্রীড়াঙ্গনে তার ব্যাপক ভক্ত রয়েছে। এমনকি ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা আমির খানসহ বেশীরভাগ মুসলিম তারকারাই এই বুজুর্গের অনুসারী।


উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনে প্রকাশিত সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  • 169
  • 206
  •  
  • 195
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    570
    Shares